❋ তােমার কলেজে বাংলা নববর্ষ উদযাপনের বর্ণনা দিয়ে তােমার বন্ধুকে একটি পত্র লেখ। 
❋ অথবা, তােমার কলেজে বাংলা বর্ষবরণ উদযাপনের বর্ণনা দিয়ে প্রবাসী বন্ধুকে একটি পত্র লেখ।

পাচলাইশ, চট্টগ্রাম।

১০ বৈশাখ ১৪২৪ 

সুপ্রিয় মােহন,

বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা নিও। আমাদের জীবন থেকে ঘটনাবহুল আরও একটি বছর বিদায় নিয়ে গেল। নতুন বছরের নব উদ্দীপনায় জীবনে এগিয়ে যাওয়ার উদ্দেশ্যে ১লা বৈশাখ আমাদের কলেজে বর্ষবরণ অনুষ্ঠান উদযাপিত হয়েছে। এ অনুষ্ঠান সম্পর্কে তােমাকে সংক্ষেপে জানাচ্ছি। 

বাংলা নববর্ষ তথা ১লা বৈশাখ আমাদের জাতীয় জীবনে এক ঐতিহ্যবাহী ও গুরুত্বপূর্ণ উৎসব । আমাদের সত্তার সঙ্গে ১লা বৈশাখ অত্যন্ত নিবিড়ভাবে জড়িত। বাঙালি সংস্কৃতির এক গুরুত্বপূর্ণ অংশ বাংলা নববর্ষ। এ অনুষ্ঠানে ধর্ম-বর্ণ-জাতি নির্বিশেষ সকলে সমবেত হয়। প্রতিবছরের ন্যায় এবারও আমাদের কলেজে বর্ষবরণ অনুষ্ঠান উদযাপিত হয়েছে। এ বছর মহাসমারােহে বাংলা নববর্ষ উদযাপিত হয়েছে। কলেজের ছাত্রসংসদ দায়িত্বপূর্ণভাবে কাজ করে সমগ্র অনুষ্ঠান সাফল্যমণ্ডিত করেছে। নির্বাহী কমিটির প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন বাংলা বিভাগীয় প্রধান। তিনি অনুষ্ঠানটি সুন্দর ও সুশৃঙ্খলভাবে উদ্যাপন করার জন্য আমাদের গুরুত্বপূর্ণ দিক-নির্দেশনা প্রদান করেছেন। আমরা নিজ নিজ দায়িত্ব বুঝে নিয়ে কাজ করতে থাকি। নববর্ষ উপলক্ষ্যে কলেজ প্রাঙ্গণে মেলার আয়ােজন করা হয়। মেলায় প্রচুর লােকের সমাগম ঘটে। দোকানিরা নানা ধরনের জিনিসের পসরা সাজিয়ে দোকানে বসেছে। বিশেষ করে লােকজ সংস্কৃতির পণ্যেরই প্রাধান্য ছিল। মেলায় পুতুলনাচ ও সার্কাসের আয়ােজনও ছিল। একদিকে মেলা, আরেকদিকে চলছিল সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন আমাদের কলেজের মাননীয় অধ্যক্ষ। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা শিক্ষা অফিসার মহােদয়। প্রধান অতিথি ও কলেজের শিক্ষক মহােদয়গণের বক্তব্যে বাংলা নববর্ষের ইতিহাস ও বিভিন্ন দিক প্রকাশ পেয়েছে। আলােচনা পর্ব শেষে মনােজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান শুরু হয়। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে লােকনৃত্য, ধ্রুপদী নৃত্য, লােকগীতি বাউলগান, ভাটিয়ালি গান, জারি-সারি পরিবেশনসহ নাটক মঞ্চস্থ হয়। অনুষ্ঠান শেষে আমরা বাড়িতে ফিরে আসি।

তোমাদের কলেজে অনুষ্ঠিত বাংলা নববর্ষ অনুষ্ঠানের কথা জানিয়ে মাকে পত্র লিখ বড়দের শ্রদ্ধা ও ছোটদের স্নেহ জানিয়ে শেষ করছি

ইতি 

তোমার বন্ধু 

রাকিব

Rate this post